পুলিশের বিরুদ্ধে কেন প্ল্যাকার্ড? কে কি বললেন

0 31

বেপরোয়া গতির বাসে রাজধানীতে দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার ঘটনায় উত্তাল সারাদেশ। নিরাপদ সড়কের সহ নয়দফা দাবিতে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। কিন্তু আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা পুলিশের বিরুদ্ধে কটুক্তি করে নানারকম প্ল্যাকার্ড ব্যবহার করছে। যদিও এটি পুলিশ বিরোধী আন্দোলন না তবে কেন এসব প্ল্যাকার্ড? এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে নানা আলোচনা, সমালোচনা।

এ বিষয়টিকে পুলিশের বিভিন্ন স্তরে নিয়োজিত কর্মকর্তারা কে কিভাবে দেখছেন? তারা মুখোমুখি হয়েছেন জয়নিউজবিডির সঙ্গে।

আমেনা বেগম (অতিরিক্ত কমিশনার, সিএমপি): সড়ক দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়াকে কেন্দ্র করে এই আন্দোলন। মূলত গণ পরিবহনের নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে এবং নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীরা মাঠে নেমেছে। আমাদের দায়িত্ব হলো মানুষের সম্পদ, জান-মালের নিরাপত্তা প্রদান করা। সেই দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে কারো কটু কথা, কারো প্রশংসা শুনবো। এসব আমলে নিলে মূল কাজ ব্যহত হবে। তাই এসবে কান না দিয়ে যে যাই বলুক, আমরা আমাদের কাজে মনোযোগি আছি, থাকবো।

এস এম মোস্তাইন হোসেন (উপ পুলিশ কমিশনার, সিএমপি) : পুলিশের বিরুদ্ধে সবাই প্ল্যাকার্ড বহন করে। আমরা এতে ক্ষুব্ধ হলে হবে না। কেউ গালি দিবে, কেউ প্রশংসা করবে। আমরা আমাদের কাজ করবো।

মঈনুল ইসলাম (সহকারী কমিশনার, সিএমপি): চলছে নিরাপদ সড়কের দাবি আন্দোলন। কিন্তু প্ল্যাকার্ড হচ্ছে পুলিশের বিরুদ্ধে। পুলিশতো রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালন করছে। পুলিশকে কেন প্রতিপক্ষ ভাবা হচ্ছে? অশ্লীল শব্দ প্রয়োগ কারো কাম্য নয়। যে সকল শব্দ আমরা সচরাচর ব্যবহার করিনা তা যদি এভাবে ব্যবহার হয় তা দুঃখজনক। এভাবে চললে আমাদের সন্তানরা নৈতিকভাবে অধঃপতিত হবে। এটা রোধ করতে হবে। সচেতন করতে হবে।

মোহাম্মদ মহসীন(ওসি, কোতোয়ালি): পুলিশ বিরোধী প্ল্যাকার্ড বহন মূলত পুলিশকে নেতিবাচকভাবে উপস্থাপনের ফল। নাটক, সিনেমায় দেখা যায় পুলিশ একটি খারাপ চরিত্র। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে সারাদিন কাজ করে দেখলাম তারা পুলিশের ব্যাপারে অত্যন্ত পজেটিভ। তারা যদি অনিয়মের বিরুদ্ধে আমাদের পাশে থাকে তবে তা অবশ্যই প্রশংসার। কিন্তু একটি পক্ষ ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার চেষ্টা করছে। তাদেরকে সে সুযোগ দেওয়া যাবে না।

এদিকে নাম প্রকাশ না করা শর্তে পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, শিক্ষার্থীরা মূলত আমাদের কাজই করছে। আমরা ফিটনেস, লাইসেন্স এসব চেক করলে চালক মালিকরা অবরোধ করে। জন দূর্ভোগ বাড়ায়। এখন জনগণই শৃংখলা ফেরাতে রাস্তায় নেমেছে। এটা প্রশংসার বিষয়। কিন্তু অশ্লীল প্ল্যাকার্ড কাম্য নয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.